মোবাইলে টাকা আয়ের সেরা ৫টি উপায়

মোবাইলে টাকা আয়ের উপায় :  কথাটি আপনি একবার না একবার হলেও গুগলে লিখে সার্চ দিয়েছেন। এর মানে হলো আপনার কাছে একটি মোবাইল ফোন আছে এবং আপনি মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে চান। তাই আজকের আর্টিকেলে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চলেছি মোবাইলে টাকা আয়ের সেরা ৫ টি উপায়
মোবাইলে টাকা আয়ের উপায় একথাটি এতবার সার্চ করার কারণ হচ্ছে বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষই বেকার। যার কারণে তারা জানতে চায় কিভাবে মোবাইলে টাকা আয় করা যায়।। তো চলুন বেশি কথা না বলে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার উপায় গুলো একে একে জেনে নেয়া যাক।

১.সার্ভে কাজ করে মোবাইেল টাকা আয় 

ইন্টারনেটে পরিসংখ্যান বা সার্ভে বিষয়ক অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো সার্ভে কাজ করে আপনি মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারেন। এমন একটি সাইট হলো swagbucks. এখানে খুব সহজেই একাউন্ট খুলে আপনি সার্ভে কাজ করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

এখানে মূলত আপনাকে পরিসংখ্যানের মাধ্যমে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়ে তথ্য দিতে হবে তাদের।তারা এই তথ্যগুলোকে বিভিন্ন কোম্পানির প্রোমোশনের কাজে ব্যবহার করবে,আর সেখান থেকে ছোট্ট একটা অংশ আপনাকে তারা পেমেন্ট করবে।swag bucks এ পেপালের মাধ্যমে পেমেন্ট করা হয়।

এখান থেকে আপনি আহামরি তেমন ইনকাম করতে পারবেননা তবে একটু সময় দিয়ে কাজ করলে নেট খরচ আর পকেট খরচ চলে যাবে। বাংলাদেশের অনেক মানুষ এই সার্ভে ওয়েবসাইটে কাজ করছে। মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকামের সেরা উপায় সার্ভে কাজ করা।

২.লিখালিখি করে মোবাইলে টাকা আয়

আপনি কি কোনো নির্দিষ্ট টপিকে ভালো লিখালিখি করতে পছন্দ করেন? তাহলে আপনার জন্য মোবাইলে টাকা আয়ের সেরা উপায় এটি।আর যদি আপনি ভালো লিখতে না পারেন তাহলে চিন্তার কোনো কারন নেই ইউটিউবে কন্টেন্ট রাইটিং নিয়ে অনেক ভিডিও পেয়ে যাবেন।

ধরে নিলাম আপনি কন্টেন্ট রাইটিং পারেন,তারপর লেখালিখি করে কিভাবে আয় করা যায়।আপনি চাইলে নিজে একটি ওয়েবসাইট খুলে নিজে লিখালিখি করে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে সাইটকে মনিটাইজ করে টাকা ইনকাম করতে পারেন অথবা

বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস যেমন: fiverr.freelancer,seoclerks,upwork ইত্যাদি ওয়েবসাইটে কন্টেন্ট রাইটিং সার্ভিস দিয়ে মোবাইল দিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করতে পারেন।

বাংলাদেশের অনেক মানুষ মোবাইল দিয়ে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে কন্টেন্ট রাইটিং নিয়ে ফ্রিল্যান্সিং করছে এবং মাসিক ১০হাজার থেকে ১লাখ+ টাকা আয় করছে শুধুমাত্র মোবাইল ফোন দিয়ে। চাইলে কনটেন্ট রাইটিং করে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে পারেন।

আরো পড়ুন:মোবাইলের জন্য ৫টি সেরা ফটো এডিটিং অ্যাপ

৩.ফেসবুকে ভিডিও বানিয়ে টাকা আয়

আপনারা হয়তো সকলেই ফেসবুক ব্যবহার করে থাকেন এবং দেখতে পান যে অনেকেই নিজেদের ফেসবুক পেজে বিভিন্ন ধরনের কমেডি,শর্ট ফিল্ম, নাটক ইত্যাদি ভিডিও আপলোড করে থাকে। ওইখানে ভিডিও ছাড়ার কারণে তারা এডের এর মাধ্যমে ভালো টাকা ইনকাম করতে পারে।

আপনি যদি ভিডিও বানাতে ভালোবাসেন তাহলে ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে এড এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করতে পারেন এবং ভিডিও বানানো থেকে শুরু করে সকল কাজ আপনি শুরুতে মোবাইল ফোনে সম্পন্ন করতে পারবেন। বাংলাদেশে এমন অনেকেই রয়েছে যারা ফেসবুকে ভিডিও বানিয়ে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে।

আরো পড়ুনঅনলাইনের মাধ্যমে টাকা আয়ের সেরা ৫টি উপায়

৪.গ্রাফিক্স ডিজাইন করে মোবাইলে আয়

আমরা সকলেই হয়তো জানি যে গ্রাফিক্স ডিজাইন করতে হলে কম্পিউটারের এডোবি ফটোশপ এবং ইলাস্ট্রেটর এর মত বড় সফটওয়্যার লাগে। কিন্তু আপনি কি জানেন, মোবাইলে এমন অনেক অ্যাপ রয়েছে যেগুলো দিয়ে গ্রাফিক্সের কাজ করা যায়? মোবাইলের জন্য যে অ্যাপ গুলো রয়েছে সেগুলো দিয়ে গ্রাফিক্স ডিজাইনের বেসিক কাজগুলো করা যায় তবে একেবারে প্রফেশনালি না।

 তবে গ্রাফিক্স ডিজাইন শুরুর জন্য ঠিক আছে। প্রথমে আপনি আপনার কিছু ডিজাইন তৈরি করবেন এবং একটি ফেসবুক পেজ খুলবেন শুধুমাত্র পোর্টফলিও হিসেবে ব্যবহারের জন্য। তারপর আপনার তৈরীকৃত ডিজাইনগুলো ফেসবুক পেজে আপলোড করবেন বিজনেস ফ্রেন্ডলি করে।

তারপর আপনি চাইলে আপনার ফেসবুক পেজকে বুস্ট করাতে পারেন আশা করা যায় ঐ পেজের বুস্ট থেকে আপনি ভাল পরিমাণের ক্লায়েন্ট পেয়ে যাবেন এবং মোবাইল দিয়ে গ্রাফিক্সের কাজ করে ভালো পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আমাদের দেশে এমন অনেক মোবাইল গ্রাফিক্স ডিজাইনার রয়েছে যারা মোবাইল দিয়ে ডিজাইনের কাজ করে নিজেদের পকেট + নেট চালানোর মতো খরচ তুলতে পারে।

আরো পড়ুন: এফিলিয়েট মার্কেটিং করে টাকা আয় করুন

৫.ফেইসবুক মার্কেটিং করে টাকা আয়

আপনি যদি আমাকে প্রশ্ন করেন যে, "কিভাবে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করে?" আমি আপনাকে সব সময় সাজেস্ট করবো ফেইসবুক মার্কেটিং করার। প্রশ্ন আসতে পারে "ফেইসবুক মার্কেটিং কি?"

আপনারা হয়তো ফেসবুক চালালে দেখে থাকবেন যে হঠাৎ করে আমাদের নিউজফিডে বিভিন্ন কোম্পানির এড শো করে কিংবা আমরা বিভিন্ন জিনিস অনলাইনে কেনাকাটার সময় বিভিন্ন বিজনেস পেজে নক দিলে দেখতে পাই যে সব সময় একজন রিপ্লাই দিয়েই যাচ্ছে।কাজটা আসলে  কে করে থাকে? 

বিজনেস যদি বড় হয় মালিকের নিজেরতো সময় নেই কাস্টমারদের মেসেজের রিপ্লাই দেওয়ার। তো এই সকল আনুষঙ্গিক ফেসবুক পেইজ এর কাজ করে দেয়ার জন্য মালিক অবশ্যই একজন সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ম্যানেজার হায়ার করে থাকে, যারা ফেসবুক পেজে নিয়মিত পোস্ট করবে এবং কাস্টমারদের রিপ্লাই দিবে।

সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটারদের ভালো পরিমাণে টাকাও পে করে থাকে তারক।আর আমরা সকলেই জানি যে মোবাইল ফোন দিয়ে ফেসবুক পেইজের সেলপোস্ট  থেকে শুরু করে ভালোভাবেই মেসেঞ্জারে কাস্টমারদের রিপ্লাই দেয়া সম্ভব। তাই আমার মনে হয়না ফোন দিয়ে সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটিং অনেক কঠিন কিছু। আপনি চাইলেই পারবেন। আমার কাছে  মোবাইল দিয়ে অনলাইনে টাকা ইনকাম এর সেরা উপায় এটি।

শেষকথা:

এটাই ছিলো আমাদের মোবাইলে টাকা ইনকামের সেরা ৫টি উপায়।আশা করছি আপনি উপকৃত হবেন।আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ মোবাইলে টাকা আয়ের উপায় ২০২১ বিষয়ক আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ারা জন্য।আমাদের পোস্ট নিয়মিত পেতে আমাদের সাইটটিকে বুকমার্ক করে রাখুন।